লভ্যাংশ পাঠিয়েছে তিন কোম্পানি

Bonikbarta

৩০ জুন সমাপ্ত ২০২০ হিসাব বছরের জন্য অনুমোদিত লভ্যাংশ পাঠিয়েছে মতিন স্পিনিং মিলস লিমিটেড, সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেড ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে তথ্য জানা গেছে।

মতিন স্পিনিং: ৩০ জুন সমাপ্ত ২০২০ হিসাব বছরের জন্য কোম্পানিটি শেয়ারহোল্ডারদের ১৮ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে, যা বাংলাদেশ ইলেকট্রনিক ফান্ডস ট্রান্সফার নেটওয়ার্কের (বিইএফটিএন) মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট শেয়ারহোল্ডারদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা করা হয়েছে।

সমাপ্ত হিসাব বছরে মতিন স্পিনিং মিলসের শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে টাকা ১৬ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৯৭ পয়সা। ৩০ জুন কোম্পানিটির পুনর্মূল্যায়ন সঞ্চিতিসহ শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৪৯ টাকা ২৯ পয়সা।

চলতি হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জুলাইসেপ্টেম্বর) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, মতিন স্পিনিং মিলসের ইপিএস ছিল ৮৬ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ১৮ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর কোম্পানিটির এনএভিপিএস ছিল ৫০ টাকা ১৬ পয়সা।

সাইফ পাওয়ারটেক: ৩০ জুন সমাপ্ত ২০২০ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের শতাংশ নগদ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দিয়েছে কোম্পানিটি। এর মধ্যে শতাংশ স্টক লভ্যাংশ সংশ্লিষ্ট শেয়ারহোল্ডারদের বিও অ্যাকাউন্টে জমা করেছে তারা। এছাড়া শতাংশ নগদ লভ্যাংশ নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই বিইএফটিএনের মাধ্যমে শেয়ারহোল্ডারদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা করা হবে বলে কোম্পানিটি জানিয়েছে।

আলোচ্য হিসাব বছরে সম্মিলিত ইপিএস হয়েছে টাকা ১৪ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল টাকা ৫০ পয়সা। ৩০ জুন কোম্পানিটির সম্মিলিত ইপিএস দাঁড়িয়েছে ১৬ টাকা ৬৩ পয়সা। এদিকে চলতি হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকের (জুলাইসেপ্টেম্বর) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, সাইফ পাওয়ারটেকের ইপিএস হয়েছে ৩৯ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৫৮ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর কোম্পানিটির সম্মিলিত এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ১৭ টাকা পয়সা।

আইসিবি: ৩০ জুন সমাপ্ত ২০২০ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের শতাংশ নগদের পাশাপাশি শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এর মধ্যে শতাংশ নগদ লভ্যাংশ বিইএফটিএনের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট শেয়ারহোল্ডারদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাঠিয়েছে তারা। আর যাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে বিইএফটিএনের মাধ্যমে টাকা পাঠানোর সুযোগ নেই, তাদের ঠিকানায় ডিভিডেন্ড ওয়ারেন্ট শিগগিরই পাঠানো হবে বলে কোম্পানিটি জানিয়েছে।

আলোচ্য হিসাব বছরে আইসিবির সম্মিলিত ইপিএস হয়েছে ৭৪ পয়সা, আগের হিসাব বছরে যা ছিল ৭৮ পয়সা। ৩০ জুন প্রতিষ্ঠানটির সম্মিলিত এনএভিপিএস দাঁড়ায় ৫৬ টাকা ৪৯ পয়সা, আগের হিসাব বছর শেষে যা ছিল ৬০ টাকা ১৩ পয়সা।

এদিকে চলতি হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জুলাইসেপ্টেম্বর) আইসিবির সম্মিলিত ইপিএস হয়েছে ৪০ পয়সা, যেখানে আগের হিসাব বছরের একই সময়ে শেয়ারপ্রতি লোকসান ছিল টাকা ৭৫ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর সম্মিলিত এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ৫৭ টাকা ২৫ পয়সা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.